আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং করে কিভাবে আয় করবেন?

আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আপনি আয় করতে পারেন নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করে:

  • অ্যাকাউন্ট খোলা: প্রথমে আপনার একটি আমাজন এফিলিয়েট অ্যাকাউন্ট খুলুন। এটি খুব সহজ প্রক্রিয়া, এবং অ্যাকাউন্ট খোলা ফ্রি।
  • নির্বাচন করুন প্রোডাক্ট: আপনি একটি পণ্য নির্বাচন করুন যা আপনি প্রচার করতে চান। আমাজনে একাধিক পণ্যের পরিমাণ অনেক বড়, তাই পণ্যের নির্বাচনে সাবধান হওয়া উচিত।
  • আপনার পোষ্ট এবং ওয়েবসাইটে এফিলিয়েট লিংক যুক্ত করুন: আপনি আমাজনের পণ্যগুলির সাথে আমাজন এফিলিয়েট লিংক পেয়ে থাকবেন। এই লিংকগুলি ব্যবহার করে আপনি আমাজনের পণ্যের প্রচার করতে পারেন আপনার ওয়েবসাইট, ব্লগ, সামাজিক মাধ্যম পোস্ট ইত্যাদি মাধ্যমে।
  • প্রচার এবং প্রচার করুন: আপনার ওয়েবসাইট, ব্লগ, সামাজিক মাধ্যম, ইমেইল পরিষেবা, ইত্যাদি এমন প্লাটফর্মে আপনার আমাজন এফিলিয়েট লিংক প্রচার করুন।
  • প্রয়োজনীয় পণ্য সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য উপলব্ধ করান: আপনার প্রচার করা পণ্যের সম্পর্কে গ্রাহকদের বিস্তারিত তথ্য প্রদান করুন, যেমন পণ্যের বৈশিষ্ট্য, মূল্য, রিভিউ, ইত্যাদি।
  • ট্র্যাক এবং পর্যালোচনা করুন: আপনার আমাজন এফিলিয়েট ড্যাশবোর্ড থেকে আপনার লিঙ্ক ক্লিক, প্রতিষ্ঠানের প্রবেশ, এবং বিক্রি সংখ্যা সম্পর্কে পর্যালোচনা করুন। এটি আপনাকে আপনার পরিস্থিতি মূল্যায়ন করতে সাহায্য করবে এবং আপনার মার্কেটিং প্রচারে সফলতার মাপ গ্রহণ করবে।
  • উচ্চ কমিশনের পণ্যে মনোনিবেশ করুন: প্রাসঙ্গিক আপনার পাবলিকের দৃষ্টিতে আকর্ষণীয় এবং উচ্চ কমিশনের পণ্য প্রচার কর,

এখন আমরা জানব, Amazon e-commerce website কি ?

Amazon একটি বৃহত্তম ই-কমার্স ও মাল্টিন্যাশনাল প্লাটফর্ম, যা বিশ্বব্যাপী বিক্রি ও ক্রয় প্রদান করে। এটি একটি পুরো নির্ভরযোগ্য ও প্রতিষ্ঠানিক সম্প্রদায়ের হিসেবে স্বাধীনভাবে পরিচালিত হয়ে থাকে। এমনকি, এটি বিভিন্ন ধরনের পণ্য ও সেবা সরবরাহ করে, যেমন বই, ইলেকট্রনিক্স, পোষাক, গৃহস্থালি, স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য, খেলনা, ইত্যাদি।

এতে সাথে অনেক সেবা যোগ করা হয়েছে, যেমন এমাজন প্রাইম, এমাজন মিউজিক, এমাজন প্রাইম ভিডিও, ইত্যাদি। সারা বিশ্বে একের অধিক দেশে আমাজন প্রতিষ্ঠান আছে এবং এটি সম্প্রদায়ের সাথে যোগাযোগ করে তাদের দরপত্র ও অনুমোদন প্রদান করে। এমাজন একটি নির্ভরযোগ্য ও গুরুত্বপূর্ণ ই-কমার্স প্লাটফর্ম হিসাবে চিহ্নিত হয়েছে এবং সামগ্রিকভাবে আনুমানিক ৩৩% মার্কেটশেয়ার অধিষ্ঠান করে।

আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং কি?

আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং হলো এমন একটি ব্যবসা মডেল যেখানে আপনি আমাজনের পণ্যগুলি প্রচার করে উপার্জন করতে পারেন। এটি একটি প্রচলিত ই-কমার্স বিপণন প্রক্রিয়া যেখানে আপনি আমাজনের পণ্যের সরাসরি বিজ্ঞাপন না করে প্রচার করেন, তবে আপনি আপনার ওয়েবসাইট, ব্লগ, সামাজিক মাধ্যম পেজ ইত্যাদি মাধ্যমে আমাজনের পণ্যের বিজ্ঞাপন করেন এবং যে কেউ আপনার প্রচার করা পণ্যের লিঙ্ক থেকে পণ্য কিনলে, আপনি কিছু কমিশন পাবেন।

এটি একটি প্রচলিত উপার্জনের পদ্ধতি হিসাবে পরিচিত এবং বেশি সংখ্যক ব্যক্তি এটি ব্যবহার করেন যারা অনলাইনে পেশা পরিবর্তন করতে চান বা অতিরিক্ত উপার্জনের সূযোগ চান। এই পদ্ধতিতে, আপনি একজন এফিলিয়েট মার্কেটার হিসাবে রেজিস্টার করে, আমাজনের সাথে যোগাযোগ করে পণ্য প্রচার করতে শুরু করতে পারেন। তারপর আপনি আমাজন এফিলিয়েট লিঙ্কগুলি আপনার ওয়েবসাইট বা সামাজিক মাধ্যম পেজে অনুলিপি করতে পারেন। এই লিঙ্কগুলির মাধ্যমে কেউ যখন আমাজনে ক্লিক করে পন্য কিনে, তখন আপনি কিছু কমিশন পাবেন যেটি আপনি নির্ধারিত করেছেন।

সাধারণত, আমাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং সহজ এবং উপকারী হিসাবে মনে হয়, যদিও সাফল্য প্রাপ্ত করার জন্য সঠিক নীতি, প্রচার এবং লক্ষ্যগুলির প্রয়োজন রয়েছে।

Amazon affiliate marketing এর সুবিধা গুলো কি ?

  • বিশাল পণ্য সমৃদ্ধি: আমাজনে অসীম পণ্য সমৃদ্ধি রয়েছে, এটি মার্কেটারদের জন্য একটি ভারসাম্যিক পণ্য নির্বাচন করতে সুযোগ সৃষ্টি করে।
  • বড় কমিশন রেট: আমাজন আপনার প্রচার করা পণ্যের মূল্যের একটি নির্ধারণ হিসেবে আপনাকে কমিশন প্রদান করে, যা সাধারিত ই-কমার্স সাইটের মাধ্যমে বেশি হতে পারে।
  • পূর্বনির্ধারিত কোড এবং উপায়ে প্রবর্তন: আমাজন এফিলিয়েট ড্যাশবোর্ড দিয়ে আপনি কোড এবং সাধারিত উপায়ে প্রবর্তন করতে পারবেন, যা আপনার লক্ষ্যে সাহায্য করতে পারে।
  • কোনও পণ্যের প্রচার আপাতত যায়নি: যেকোনো পণ্যের প্রচার আপাতত যায়নি, তার মাধ্যমে আপনি প্রচার করতে পারেন এবং সহায় প্রাপ্ত করতে পারেন।
  • বোনাস প্রোগ্রাম: আমাজন আপনার বেশি কমিশন প্রদান করতে এবং আপনার কাস্টমারদের এমাজন প্রাইমে সাইন আপ করার জন্য ইনসেন্টিভ দেয়ার জন্য বোনাস প্রোগ্রাম অফার করে।
  • দৈর্ঘ্যকালিন কুকি সাপোর্ট: আপনার প্রচার করা লিঙ্কের মাধ্যমে একজন ব্যবহারকারী আমাজনে পৌঁছার পরে তার কম্পিউটারে আপনার এফিলিয়েট ইনফরমেশনটি একটি দৈর্ঘ্যকালিন কুকি হিসেবে সংরক্ষণ করে রাখবে, যাতে আপনি সহজেই তার পুরস্কৃত কেনাকাটা থেকে কমিশন প্রাপ্ত করতে পারেন।
  • পেমেন্ট এবং ট্র্যাকিং: আমাজন এফিলিয়েট প্রোগ্রাম প্রদান করে বিশ্বাসযোগ্য এবং সম্পূর্ণ ট্র্যাকিং সুবিধা, এবং আপনি প্রতি মাসে আপনার কমিশন পেমেন্ট প্রাপ্ত করতে পারবেন।

এগুলি হলো কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা, যা এমাজন এফিলিয়েট মার্কেট,

Amazon এর products গুলোকে অনলাইনে প্রচার কিভাবে করবেন ?

Amazon এর পণ্যগুলি অনলাইনে প্রচার করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে যা নিম্নে উল্লিখিত:

  • ওয়েবসাইট বা ব্লগ: আপনি আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইট বা ব্লগে আমাজন এফিলিয়েট লিঙ্ক এবং বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে পণ্য প্রচার করতে পারেন। এটি আপনার নিজের নিচে ক্যাটাগরি নির্বাচন করা পণ্যের প্রতিষ্ঠান বা আপনার কাস্টমারদের আগ্রহের উপর ভিত্তি করে করা যেতে পারে।
  • সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম: আপনি আমাজন প্রডাক্ট প্রচার করতে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে পারেন, যেমন ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, ইত্যাদি। এই প্ল্যাটফর্মগুলিতে পণ্যের ছবি, বিবরণ, বিজ্ঞাপন এবং আপনার এফিলিয়েট লিঙ্ক শেয়ার করা যেতে পারে।
  • ইমেল মার্কেটিং: আপনি আপনার কাস্টমারদেরকে ইমেল মার্কেটিং পরিষেবা ব্যবহার করে আমাজন পণ্য প্রচার করতে পারেন। প্রতিটি ইমেলে আমাজনের প্রচার করা পণ্যের জন্য আপনার এফিলিয়েট লিঙ্ক সংযুক্ত করা যেতে পারে।
  • ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং: আপনি ইনফ্লুয়েন্সারদের সাথে সহযোগিতা করে তাদের আপনার প্রচার করা পণ্য প্রচার করতে পারেন। এই ইনফ্লুয়েন্সাররা তাদের সামাজিক মাধ্যম প্ল্যাটফর্মে আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন এবং লিঙ্ক শেয়ার করতে পারে।
  • ইউটিউব মার্কেটিং: আপনি ইউটিউবে ভিডিও তৈরি করে এবং আমাজনের পণ্যের বিজ্ঞাপন করতে পারেন, এটি আপনার নিজের প্রচার এবং পণ্য পর্যালোচনা করার একটি দুর্দান্ত উপায়।
  • পেইড অ্যাড: আপনি আমাজনের পেইড অ্যাড প্রোমোশনাল বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে প্রচার করতে পারেন যা বিভিন্ন অনলাইন প্ল্যাটফর্মে প্রদর্শিত হয়।

এই গুলো ফলো করে আমরা সেল বাড়াতে পারি ,

কিভাবে আমাজন একাউন্ট খুলব ভিডিও সহকারে 

Related Posts

ফেসবুক এর মাধ্যমে কিভাবে আপনার ব্যবসার প্রচার করবেন?

ফেসবুক এর মাধ্যমে আপনার ব্যবসা প্রচার করতে আপনি একাধিক উপায়ে সক্ষম হতে পারেন। এখানে কিছু প্রধান উপায় দেখানো হয়েছে: ফেসবুক পেজ তৈরি করুন: ফেসবুক পেজ তৈরি করতে…

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং সুবিধা কি?

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার: সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার একজন ব্যক্তি বা পেশাদার যার দায়িত্ব হয় একটি প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল এবং পৃষ্ঠার পরিচালনা ও প্রচার-প্রসার করা। এই…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *